Saturday , 4 February 2023
আপডেট
Home » জাতীয় » নৌকায় ভোট দিন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন: প্রধানমন্ত্রী
নৌকায় ভোট দিন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন: প্রধানমন্ত্রী

নৌকায় ভোট দিন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন উন্নয়নের ধারাবাহিকতা থাকে। ২০১৪ সালে আমরা পুনর্র্নিবাচিত হয়েছিলাম বলেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে পেরেছি। তা যদি হয় তাহলে সরকারের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। রবিবার চাঁদপুর স্টেডিয়ামে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় তিনি চাঁদপুরের উন্নয়নে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, চাঁদপুরের উন্নয়নে আপনাদের কোনও দাবি করা লাগবে না। নৌকা মার্কায় ভোট দিন, আমরা নিজেরাই চাঁদপুরের সব উন্নয়ন করে দেবো। তিনি জনসভায় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ডা. দীপুমনিকে দেখিয়ে বলেন, আপনাদের এই জনপ্রতিনিধি ডাক্তার। সে আমার কাছে আগেই চাঁদপুরে একটা মেডিক্যাল কলেজ করে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। কথা দিয়েছি, চাঁদপুরে মেডিক্যাল কলেজ করে দেবো। এখানে পর্যটনের প্রচুর সুযোগ আছে। বিশেষ করে পদ্মা ও মেঘনা যেখানে মিলেছে নৌভ্রমণের জন্য এ জায়গা সব থেকে সুন্দর। সেই জায়গাটা দেখতে দেশবাসীকে সুযোগ করে দেবো। চাঁদপুরে পর্যটন কেন্দ্র হবে।
চাঁদপুরের হাইমচরে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে বিনিয়োগের ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়াও এখানে একটা নৌবন্দর করে দেবো ।’ এসময় নদীভাঙন কবলিত এলাকাগুলো সংস্কারসহ এ এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি।
শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের দোড়গোড়ায় আমরা চিকিৎসাসেবা পৌঁছে দিয়েছি। আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত, বাংলাদেশের একটা মানুষও গৃহহারা থাকবে না। যাদের ঘর নাই, বাড়ি নাই আমরা তাদের বাড়িঘর করে দিচ্ছি। আমরা চাই না দেশের মানুষ ভিক্ষা করে চলুক। এজন্য দেশকে ভিক্ষামুক্ত করার চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, এ কাজটি শুরু করেছিলেন খুলনা জেলা প্রশাসক। এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে উন্নীত হয়েছে। বিশ্ব দরবারে আমাদের মাথা উঁচু হয়েছে। পদ্মা ও মেঘনা নদী তীরবর্তী জেলা চাঁদপুরের মৎস্যজীবী ও জেলেদের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সব মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। যখন ইলিশ শিকার বন্ধ থাকে তখন আমরা জেলেদের মাসে ৪০ কেজি করে চাল দেই। তাদের দুর্দশা রোধে আমরা পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা চাই দেশের মানুষের উন্নয়ন। আমরা যা যা ওয়াদা করেছি সব কিছু ঠিকমতো পালন করে যাচ্ছি। ১৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছি। প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সালের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী, ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন ও ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করার অঙ্গীকার করেন।
জনসভায় বিএনপিকে উদ্দেশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতিমদের জন্য টাকা এনে তারা সে টাকা মেরে দিয়েছে। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে টাকা পাচারের অভিযোগে বিদেশে মামলা হয়েছে। আমরা সে টাকা সেখান থেকে ফেরত এনেছি।
তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের সন্তান কোথায় যায়, কেন যায় সে বিষয়ে আপনারা লক্ষ্য রাখবেন। তরুণ প্রজন্মকে মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে দূরে রাখতে হবে। এজন্য অভিভাবকদের ভূমিকা রাখতে হবে।
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হিসেবে তিনি বলেন, নৌকা মার্কা আপনাদের মার্কা। নৌকা উন্নয়নের মার্কা। নৌকা মানুষ, পশুপাখি সবাইকে রক্ষা করে। নূহ নবীর (আ.) সময়েও নৌকা সবাইকে বিপদ থেকে রক্ষা করেছিল। তাই উন্নয়ন ও ধারাবাহিকতা রক্ষায় নৌকা মার্কায় ভোট দিতে সবাইকে আহ্বান জানাচ্ছি। এসময় তিনি নৌকায় ভোট দেওয়ার ব্যাপারে উপস্থিত জনতাকে দুই হাত তুলে অঙ্গীকার করতে বলেন। জনতাও দুই হাত তুলে তাদের সমর্থন ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*