Sunday , 27 May 2018
আপডেট
Home » আপডেট নিউজ » ক্র্যাব-অন্তর শোবিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন
ক্র্যাব-অন্তর শোবিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন

ক্র্যাব-অন্তর শোবিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন

বিনোদন প্রতিবেদক : মাদক ও জঙ্গিবিরোধী কনসার্ট-২০১৮ আয়োজন উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) ও দেশের অন্যতম ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান অন্তর শোবিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন হয়েছে।
বৃহস্পতিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
ক্র্যাবের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার আলম ও অন্তর শোবিজের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী স্বাক্ষর করেন। পরে স্বাক্ষরিত চুক্তিপত্র উভয়পক্ষের মধ্যে বিনিময় করা হয়। এ সময় ক্র্যাবের সভাপতি আবু সালেহ আকন, সহ-সভাপতি মাসুম মিজান, অর্থ সম্পাদক আজিজুল হাকিম, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক শাহরিয়ার আরিফ, দপ্তর সম্পাদক রুদ্র রাসেল, কার্যনির্বাহী সদস্য আলাউদ্দিন আরিফ ও খন্দকার হানিফ রাজাসহ ক্র্যাব সদস্য, অন্তর শোবিজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর নাসরিন চৌধুরীসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এবং গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে ‘মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী কনসার্ট-২০১৮’ আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব)। আগামী ২৭ জুলাই রাজধানীর বসুন্ধরা এক্সপো জোনে এ কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে। কনসার্টে শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন, মাইলস, বাপ্পী লাহিড়ি, শ্রেয়া ঘোষাল, অনুপম রায়, শান, উর্বশী রাউটুলা, মুম্বাই ড্যান্স গ্রুপসহ দেশি-বিদেশি কণ্ঠশিল্পী ও নৃত্য শিল্পীরা উপস্থিত থাকবেন বলে প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিশেষ কোনো পরিস্থিতি বা যথাযথ কারণ ছাড়া কনসার্টের তারিখ ও ভেন্যু অপরিবর্তিত থাকবে। ক্র্যাব সদস্য ছাড়া অন্যরা নির্ধারিত টাকার বিনিময়ে টিকিট ক্রয় করে এই কনসার্ট উপভোগ করতে পারবেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইতিমধ্যে এ বিষয়ে ক্র্যাবের পক্ষ থেকে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ ও ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তারা কনসার্টের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, জঙ্গিবাদ ও মাদক দেশের অন্যতম প্রধান সমস্যা। তরুণ-তরুণী, শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ জঙ্গিবাদ ও মাদকে জড়িয়ে পরিবার ও সমাজ থেকে আলাদা হয়ে বিপথগামী হচ্ছে। তাদের কেউ কেউ আত্মঘাতী হওয়ার সিদ্ধান্তও নিচ্ছে। পরিবারের একজন সদস্য মাদক বা জঙ্গিবাদে জড়ানোর কারণে গোটা পরিবার নানামুখী সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে ‘মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী কনসার্ট-২০১৮’ আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*