Tuesday , 20 November 2018
আপডেট
Home » তথ্য ও প্রযুক্তি » ‘ক্যারিয়ার ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং’ নিয়ে এলো এক্সিলেন্স বাংলাদেশ

‘ক্যারিয়ার ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং’ নিয়ে এলো এক্সিলেন্স বাংলাদেশ

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : দেশের অন্যতম ব্র্যান্ডিং প্রতিষ্ঠান ‘এক্সিলেন্স বাংলাদেশ’ কাজ করছে দেশের চাকরির বাজার নিয়ে। পাশাপাশি বেকারত্বের সমস্যা সমাধান এবং উত্ত্বরণ নিয়ে। প্রতিষ্ঠান একটি অভিনব এবং প্রশংসিত উদ্যোগ ‘নিজের পড়াশোনার সেক্টরের জব মার্কেট সম্পর্কে জানা’। বিষয়টির মূল থিম হচ্ছে ‘আমরা কেউ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করলে তার জবমার্কেট যে কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানে তাদের আমরা সরাসরি চিনি না। যোগাযোগ তৈরি হচ্ছে না যেখানে আমরা চাকরি করব তাদের সঙ্গে। শুধু পাঠ্যপুস্তকে আবদ্ধ থেকে চার বছর পর জব মার্কেটে নবীন আমরা জানি না। আমাদের সেক্টরের চাকরি কোথায় কোথায়? আমাদের কর্পোরেট লিডারই বা কারা? কার কাছে সিভি দেব, যোগাযোগ বাড়াব কিভাবে?’
এই ধারণার সঠিক উত্তর দিতে আগামি ২৬ অক্টোবর রাজধানীর কাকরাইলের আইডিইবি ভবনের সেমিনার কক্ষে হতে যাচ্ছে ‘ক্যারিয়ার ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ২০১৮’।
আয়োজনটিতে অংশ নেবেন ক্রাউন সিমেন্টের সিইও মাসুদ খান, ইগলু আইসক্রিমের সিইও কামরুল হাসান, প্রভিটা গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার জাহাঙ্গীর নবী মীর, আকিজ ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেডের সাবেক এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, শার্পনারের সিইও নজর ই জিলানী, শান্তা হোল্ডিংসের চিফ ইঞ্জিনিয়ার শাখাওয়াত হোসেন, এইচআর মার্ট বিডির সিইও এসএম আহবাবুর রহমান, স্টার সিরামিকসের প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা হাসান আকন্দ, বসুন্ধরা গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজার তানিয়া জাহিদ, স্যাম্মনি লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এসএম মহিউদ্দিন সেলিম, ড্যাফোডিল কম্পিউটারসের হেড অফ মোবাইল বিজনেস এবং সেলস অ্যাম্বাসেডর বিডির ন্যাশনাল অ্যাম্বাসেডর মুহাম্মাদ তৌফিকুল ইসলাম, বসুন্ধরা গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজার তানিয়া জাহিদ, দৈনিক মানবকণ্ঠের সাংবাদিক নাজমুল হক ইমন।
দিনব্যাপী আয়োজনে সার্টিফিকেট, কলম, প্যাড, আইসক্রিম, দুপুরের খাবার, পানি থাকবে অংশগ্রহণকারীদের জন্য। থাকছে বিশেষ একটি চমক ‘অংশ নেয়া সবার সিভি আনতে বলা হয়েছে, সিভিগুলো সঠিকভাবে লেখা হয়েছে কিনা চেক করে আয়োজকরা পরবর্তীতে চাকরির জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দরকারের ভিত্তিতে জমা দেবেন সেই সিভি’।
আয়োজনটিতে অংশ নিতে পারবে যে কোনো সেক্টরে পড়াশোনা করা শিক্ষার্থী এবং চাকরিরতরা। তবে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং পলিটেকনিকে ডিপ্লোমাধারীদের জন্য ক্যারিয়ারকে সঠিক পথে নিতে খুব ফলপ্রসু হবে বলে আশা করছেন আয়োজক প্রতিষ্ঠান ‘এক্সিলেন্স বাংলাদেশ’ এর সিইও বেনজির আবরার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*