Saturday , 8 December 2018
আপডেট
Home » আপডেট নিউজ » শুক্রবার রাতে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ছে অনূর্ধ্ব-১৫ বাংলাদেশ দল
শুক্রবার রাতে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ছে অনূর্ধ্ব-১৫ বাংলাদেশ দল

শুক্রবার রাতে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ছে অনূর্ধ্ব-১৫ বাংলাদেশ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথমবারের মতো এই প্রতিযোগতিায় অংশ নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশের কিশোর ফুটবল দল। সম্মানজনক ফলাফলের লক্ষ্য নিয়ে শুক্রবার দিবাগত রাতে থাই এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে দেশ ছাড়ছে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ দল। দেশ ছাড়ার আগে আজ বুধবার বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে উয়েফা মিনি ফুটবল টুর্নামেন্ট নিজেদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন দলের কোচ ও অধিনায়ক। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ দলের প্রধান কোচ মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ (পারভেজ বাবু) বলেন, এই টুর্নামেন্টে আমরা একটা সম্মানজনক ফল আশা করছি। সে কারণেই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ শেষে খেলোয়াড়রা কেউ বাড়ীতে না ফিরে অনুশীলনে মনোযোগী হয়েছে। পারভেজ বাবু বলেন, ‘টুর্নামেন্টে মালদ্বীপকে হারানোই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। কারণ থাইল্যান্ড ও সাইপ্রাস আমাদের চেয়ে বেশ এগিয়ে রয়েছে। তবে তাদের সম্পর্কে কোন ধারনা নেই বাংলাদেশ কোচের। তার মতে দল দুটি অপেক্ষাকৃত শক্তিধর মনে করা হলেও বয়স ভিত্তিক দলে শক্তির পার্থক্য খুব একটা থাকেনা। তাই তাদের বিপক্ষে জয় না পেলেও অন্তত ড্র করে সম্মানজনক অবস্থান নিয়েই দেশে ফিরতে চায় বাংলাদেশ দল, এমন মন্তব্য করেন কোচ। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ দলের অধিনায়ক মেহেদী হাসান বলেন, দীর্ঘ ৪ বছর ধরে এই দলটি একত্রে অনুশীলন করছে। সাফ অনুর্ধ-১৫ আসরে অংশগ্রহণের আগে আমাদের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার কোন অভিজ্ঞতা ছিলনা। তারপরও সেখানে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। এবার আমরা অভিজ্ঞতা নিয়েই থাইল্যান্ড যাচ্ছি। তাই ভাল কিছু করার আশা রয়েছে। এই মুহুর্তে আমাদের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে ভালভাবে সাইপ্রাসের মোকাবেলা করা। পরে অন্য দলগুলো নিয়ে ভাবা যাবে। সংবাদ সম্মেলনে বাফুফে সাধারণ সম্পদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, আসরের জন্য পুরুষ কিংবা মহিলা দলের মধ্যে যে কোন একটি দলকে অংশগ্রহনের আমন্ত্রন জানানো হয়েছিল। যেহেতু পুরুষ দলের এ রকম আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে অংশগ্রহণের সুযোগ কম তাই তাদেরকেই এই আসরে অংশগ্রহনের সুযোগ দেয়া হযেছে। যাতে এখন থেকেই দলটি আন্তর্জাতিক ফুটবলে অংশগ্রহণের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে। বাফুফের আবেদনের প্রেক্ষিতেই এই সুযোগটি এসেছে বলে উল্লেখ করেন ফেডারেশনের এই নির্বাহী কর্মকর্তা। চার জাতির এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে স্বাগতিক থাইল্যান্ড, বাংলাদেশ ও মালদ্বীপ। ইউরোপের একমাত্র প্রতিনিধি হিসাবে অংশ নিচ্ছে সাইপ্রাস। আগামী ১০ ডিসেম্বর বাংলাদেশ বনাম সাইপ্রাসের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। ২ ডিসেম্বর স্বাগতিক থাইল্যান্ডের মুখোমুখি হবে সাফ-অনুর্ধ ১৫ চ্যাম্পিয়নরা কিশোররা। ১৪ ডিসেম্বর আসরের শেষ ম্যাচে মালদ্বীপের মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। পয়েন্টের ভিত্তিতে টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ নির্ধারিত হবে। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ দল : মেহেদী হাসান, মারুফ আহমেদ মুগ্ধ, নাহিদ জামান উচ্ছাশ, রাজা আনসারি, তহিদুল ইসলাম হৃদয়, রোস্তম ইসলাম , রবিউল আলম, নাজমুল আহমেদ শাকিল, আল আমিন, আশিকুর রহমান, হেলাল আহমেদ, কামরান উদ্দিন রাজু, মেহদি হাসান (২), মিতুল মার্মা, মঈনুল ইসলাম মঈন, রাজন হাওলাদার, রাসেল আহমেদ ও ইবনে আহাদ শাকিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*