রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১

বাংলাদেশের কারখানায় তৈরি হবে স্যামসাং ফোরজি স্মার্টফোন

Sumon Chowdhury
এপ্রিল ৪, ২০১৮ ৫:১৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : বাংলাদেশে স্যামসাং ফোরজি স্মার্টফোন তৈরির লক্ষ্যে ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্স নরসিংদীতে একটি কারখানা তৈরির ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং বাংলাদেশে।
মঙ্গলবার দুপুরে হোটেল সোনারগাঁয় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় স্যামসাং এবং স্যামসাংয়ের দেশীয় অংশীদার ফেয়ার ইলেক্ট্রনিকস।সংবাদ সম্মেলনে জানান, এই কারখানায় মূলত ফোরজি স্মার্টফোন সংযোজন করবে স্যামসাং। আন্তর্জাতিক মান ঠিক রেখে এই স্মার্টফোনগুলো গ্রাহকদের বেশ কম দামেই দেওয়া হবে।
নরসিংদী ৫৮,০০০স্কয়ার ফুট আয়তনের এই কারখানাটিতে গ্রাহকদের জন্য সাশ্রয়ী স্মার্টফোন তৈরি করা হবে। এই কারখানার মাধ্যমে দেশে প্রত্যক্ষভাবে পাঁচ শতাধিক এবং পরোক্ষভাবে আরও অনেক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে, বাড়বে দেশের বিনিয়োগ। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরির লক্ষে এই নতুন কারখানাটি বিশেষ অবদান রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, স্যামসাং হচ্ছে দেশের প্রথম গ্লোবাল হ্যান্ডসেট কোম্পানি যারা বাংলাদেশে মোবাইল তৈরির কারখানা স্থাপন করছে।
বিশ্বে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে স্যামসাং শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে এবং এই স্থান বজায় রাখার জন্য স্যামসাং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। উন্নত প্রযুক্তির পণ্য তৈরিতে এগিয়ে থাকার জন্য স্যামসাং তাদের রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্ট খাতের উন্নয়নে সবসময় সচেষ্ট থাকে। রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্ট খাতের উন্নয়নের মাধ্যমেই স্যামসাং তাদের উন্নত ডিজাইন এবং উন্নত টেকনোলজির পণ্য আবিস্কার করছে। বিশ্বব্যাপী রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্টের উন্নয়নে স্যামসাং ২০১৭ সালে ১৫ বিলিয়নের অধিক ডলার বিনিয়োগ করেছে।
সারা বিশ্বে বাংলাদেশ এখন সবচেয়ে বড় এবং দ্রুততম ক্রমবর্ধমান স্মার্টফোন বাজার হিসেবে পরিচিত। স্যামসাং, বাংলাদেশের এই সম্ভাবনাময় বাজারে আস্থা রেখেছে এবং দেশে স্মার্টফোন উৎপাদনের অনেক চাহিদা এবং সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছে। বাংলাদেশে স্যামসাং-এর নতুন কারখানা এই চাহিদা পূরণে সাহায্য করবে বলে আশা করা হচ্ছে।
কারখানাটি বাংলাদেশ সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী স্থাপিত হচ্ছে। যার মাধ্যমে দেশে স্থানীয়করণ বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান তৈরি এবং প্রযুক্তি বিষয়ে দক্ষ শ্র্রমিক বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।
২০০৯ সালে স্যামসাং প্রথম বাংলাদেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বাজারে প্রবেশ করে এবং দেশে একটি আরএন্ডডি ইন্সটিটিউট স্থাপন করে। এই আরএন্ডডি ইন্সটিটিউট মোবাইল অ্যাপলিকেশন উন্নয়ন, বি টু বি সমাধান প্রদান এবং লোকালাইজেশন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে যাচ্ছে।
স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর স্যাংওয়ান ইউন বলেন, আমাদের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী গ্রাহকদের আসল এবং বিশ্বমানের পণ্য সরবরাহের লক্ষ্যে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্সের সাথে যুক্ত হয়ে নতুন মোবাইল উৎপাদন কারখানা ঘোষণা করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরা নিশ্চিত যে, স্যামসাং-এর ফোরজি স্মার্টফোনগুলো বাংলাদেশের ডিজিটালাইজেশনের লক্ষ্য অর্জনের পথে সাহায্য করবে।
ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রুহুল আলম আল মাহাবুব বলেন, আমরা গর্বিত যে, ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড দেশে স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্সের ফোরজি স্মার্টফোন তৈরি করবে। স্যামসাং-এর প্রযুক্তি এবং দক্ষতা ব্যবহার করে আমরা নিশ্চিত করবো যেন স্যামসাংয়ের বিশ্বমানের মানের পণ্যগুলো বাংলাদেশে্র গ্রাহকরা সাশ্রয়ী মূল্যের মধ্যে উপভোগ করতে পারে।

 

 

Please follow and like us:

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial