ঢাকাসোমবার , ৪ ডিসেম্বর ২০১৭

পাঁচ কোটি টাকার শর্তে এমপি শওকতের জামিন বহাল

editor
ডিসেম্বর ৪, ২০১৭ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুই মাসের মধ্যে পাঁচ কোটি টাকা বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমা দেয়ার শর্তে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মো. শওকত চৌধুরীর জামিন বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। শওকত চৌধুরীর দেয়া জামিন প্রশ্নে হাইকোর্টের আদেশ সংশোধন করে সোমবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার নেতৃত্বে পাচ সদস্যের আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এই আদেশ দেন।
শওকত চৌধুরীর পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী এ এম আমিনুদ্দিন, নুরুল ইসলাম সুজন ও ফজলে নূর তাপস। তাদের সঙ্গে ছিলেন মো. মাসুদ রানা। দুদকের পক্ষে ছিলেন মো. খুরশিদ আলম খান।
দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান সাংবাদিকদের বলেন, দুই মাসের মধ্যে ৫ কোটি টাকা জমা দেয়ার শর্তে জামিন দিয়েছেন আদালত। এ সময়ের মধ্যে টাকা জমা না দিলে জামিন বাতিল করা হবে।
এমপি শওকতের আইনজীবী মো. মাসুদ রানা বলেন, ৫ কোটি টাকা জমা দেয়ার শর্তে জামিন দিয়েছেন আদালত। তবে দুই মাসের মধ্যে টাকা জমা না দিলে জামিন বাতিল করা হবে এ বিষয়টি রায় না দেখে বলা যাবে না।
ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন ২০১৬ সালের ৮ ও ১০ মে শওকত চৌধুরীসহ নয়জনের বিরুদ্ধে বংশাল থানায় দুটি মামলা করে। এর মধ্যে এক মামলায় ৯৩ কোটি ৩৬ লাখ ২০ হাজার ২১৩ টাকা এবং আরেক মামলায় ৮২ লাখ ৮৯ হাজার ৮১৫ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়।
অভিযোগে বলা হয়, শওকত চৌধুরী তিনটি কোম্পানির নামে ৩৪টি এলসি খুলে বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের বংশাল শাখা থেকে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমডি ড. আসাদুজ্জামান, বংশাল শাখার ম্যানেজার হাবিবুল গণিসহ আসামিদের সঙ্গে যোগসাজশে ওই অর্থ আত্মসাৎ করেন।
বর্তমানে ওই অর্থের পরিমাণ সুদে-আসলে বেড়ে ১৩৪ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে বলে দাবি করেন কমার্স ব্যাংকের আইনজীবী সারোয়ার হোসেন। এ দুই মামলায় গত বছর আগস্টে হাইকোর্ট থেকে চার সপ্তাহের আগাম জামিন নেন শওকত চৌধুরী। পরে ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে আবারও জামিন পান।
এ অবস্থায় ওই দুই মামলার অপর দুই আসামি আসাদুজ্জামান ও হাবিবুল গণি জামিনের আবেদন করলে গত বছর ২৪ নভেম্বর তার শুনানিতে হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারি করে। শওকতকে নিম্ন আদালতের দেওয়া জামিন কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয় ওই রুলে। ওই রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে গত ২২ অক্টোবর বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ শওকত চৌধুরীর জামিন বাঁচানোর জন্য ৫০ দিনের মধ্যে ২৫ কোটি টাকা বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমা দেওয়ার শর্ত ঠিক করে রায় দেয়।
এরপর শওকতের আবেদনে আপিল বিভাগ হাইকোর্টের ওই রায়ের কার্যকরিতা স্থগিত করে তাকে আপিলের আবেদন (লিভ টু আপিল) করতে বলেন। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার সর্বোচ্চ আদালত হাইকোর্টের আদেশ সংশোধন করে এ আদেশ দেন।

Please follow and like us:

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial